শনিবার, জুন ১৫, ২০২৪
- বিজ্ঞাপন -
হোম জাতীয় বেসরকারি গ্রন্থাগারসমূহে লাইব্রেরিয়ান নিয়োগের জন্য অনুদান প্রদান করা হবেঃ সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

বেসরকারি গ্রন্থাগারসমূহে লাইব্রেরিয়ান নিয়োগের জন্য অনুদান প্রদান করা হবেঃ সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

নগর প্রতিনিধিঃ সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, সংস্কৃতি চর্চা এক ধরনের নেশা। যারা এ চর্চা করেন তারা টাকা পয়সার কথা চিন্তা করেন না। নিজেদের পকেটের টাকা খরচ করে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করে অন্যের মনের খোরাক ও বিনোদন যোগান। বই পড়াও তেমনি এক ধরনের নেশা যা মনের খোরাক যোগায় ও মানুষকে আলোকিত করে। আর এ ধরনের আলোকিত ব্যক্তিদের প্রচেষ্টা ও উদ্যোগে সারাদেশে ৮০০টির অধিক রেজিস্টার্ড বেসরকারি গ্রন্থাগার বা পাঠাগার গড়ে ওঠেছে। কিন্তু দেখাশোনার জন্য জনবল না থাকার কারণে এসব পাঠাগারসমূহ সঠিকভাবে পরিচালনা করা যাচ্ছে না এবং পাঠকরাও সঠিক সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। সেটি বিবেচনায় নিয়ে এসব পাঠাগারসমূহে লাইব্রেরিয়ান নিয়োগের জন্য সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় হতে অনুদান প্রদানের ব্যবস্থা করা হবে। প্রয়োজনে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় নতুন অর্থনৈতিক কোড সৃষ্টি করা হবে যাতে প্রতি বছর বেসরকারি পাঠাগারের লাইব্রেরিয়ানদের বেতন পরিশোধের জন্য অনুদান প্রদান করা যায়।প্রতিমন্ত্রী আজ সকালে রাজধানীর গুলিস্তানস্থ জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র মিলনায়তনে জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র আয়োজিত ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই’ শীর্ষক ধারাবাহিক পাঠ কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারী সেরা শিক্ষার্থীদের সনদ ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।প্রধান অতিথি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে বই লেখার পেছনে সবচেয়ে বেশি অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন তাঁরই সহধর্মিণী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা। বঙ্গবন্ধুর কারাগারে অন্তরীণ থাকাকালে বই লেখার জন্য তাঁকে খাতা, কলম ও পেন্সিল সরবরাহ করেছিলেন বঙ্গমাতা। সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু রচিত তিনটি বই এদেশের সকল সচেতন নাগরিকের পড়া জরুরি। তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র বঙ্গবন্ধুর বই পড়ার যে সুমহান কর্মসূচি গ্রহণ করেছে তাকে আমি সাধুবাদ জানাই এবং এটি পর্যায়ক্রমে সারাদেশে ছড়িয়ে দিতে হবে। দেশব্যাপী এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা গেলে স্বাধীনতা বিরোধীদের ইতিহাস পাল্টে দেয়া বা বিকৃত করার অপচেষ্টা কখনো সফল হবে না।জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালনা বোর্ডের সভাপতি ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. বদরুল আরেফীন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই’ শীর্ষক ধারাবাহিক পাঠ কর্মসূচির উপদেষ্টামণ্ডলীর সভাপতি বিশিষ্ট সাহিত্যিক ও গবেষক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান, উপদেষ্টা কমিটির সম্মানিত সদস্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক এবং বিশিষ্ট সাংবাদিক জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম।অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক মিনার মনসুর। শিক্ষার্থীদের পক্ষ হতে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ৪র্থ বর্ষের ছাত্রী জয়তী বিশ্বাস সূচি, হামদর্দ পাবলিক কলেজ এর একাদশ শ্রেণির ছাত্রী সামিয়া পারভীন ও ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্র সাদমান সামি।শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন দনিয়া পাঠাগারের প্রতিনিধি মো. শাহ নেওয়াজ ও সীমান্ত পাঠাগারের প্রতিনিধি মানজার চৌধুরী সুইট।উল্লেখ্য, ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র আয়োজিত ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই’ শীর্ষক ধারাবাহিক পাঠ কর্মসূচির আওতায় ঢাকা মহানগরীর স্বনামখ্যাত ১০টি বেসরকারি গ্রন্থাগারের সহযোগিতায় (প্রতিটিতে ১৫ জন করে) ঢাকা মহানগরের ১০০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৫০ জন শিক্ষার্থীকে ৩টি গ্রুপে বিভক্ত করে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রচিত তিনটি গ্রন্থ ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’, ‘কারাগারের রোজনামচা’ ও ‘আমার দেখা নয়াচীন’ পাঠ করতে দেয়া হয়। বই তিনটি পাঠ শেষে শিক্ষার্থীদের নির্দিষ্ট তিনটি বিষয়ে রচনা আকারে পাঠ প্রতিক্রিয়া প্রদানের জন্য বলা হয়। এসব রচনা হতে তিন গ্রুপে মোট ২১ জন সেরা শিক্ষার্থীকে আজ সনদ ও পুরস্কার প্রদান করা হল। পুরস্কারপ্রাপ্ত প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে ১৩ হাজার টাকার বই, দুই হাজার টাকার চেক ও সনদপত্র প্রদান করা হয়।

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- বিজ্ঞাপন -

Most Popular

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের শ্রদ্ধা নিবেদন

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের তিনটি অধিদপ্তরের দু’মাসব্যাপী বিশেষ বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারী ২৬ জন কর্মকর্তা মঙ্গলবার গোপালগঞ্জ টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর...

যারা মানুষের কল্যাণে কাজ করেন তারই মহৎ- পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেছেন, মানুষের মধ্যে যারা অনিত্য জীবন ধারণ করে নিত্য জীবন ধারণ করেছেন এবং যারা...

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী লীগ ঢাকা মহানগর উত্তরের আলোচনা ও দোয়ার আয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ শুক্রবার বিকেল ৪ টায় ঢাকা মহানগর উত্তরের ২ নং ওয়ার্ড কমিউনিটি সেন্টারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা এমপি'র ৪৪ তম...

পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়নে সকল সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসতে হবে- পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেছেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষ নির্যাতিত, নিপীড়িত, অবহেলিত, পশ্চাদপদতা সবকিছু বিবেচনা করেই কিন্তু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী...

Recent Comments